সংবাদ শিরোনাম
উখিয়ায় বন বিভাগের অভিযানে অবৈধ বালি উত্তোলনের সরঞ্জমাধি উদ্ধারউখিয়ার ডেইলপাড়া করইবনিয়া এলাকা ইয়াবার জোওয়ারে ভাসছেউখিয়ার শীর্ষ ইয়াবা ডন মীর আহম্মদ অধরাহাজীর পাড়ার শীর্ষ ইয়াবা কারবারী মীর আহম্মদকে ধরিয়ে দিনউখিয়ার নুরুল আলমকে গ্রেপ্তারে বেরিয়ে আসবে ইয়াবা ও অস্ত্রসহ গুরুত্বপূর্ণ…থাইংখালী বিট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পাহাড়সম দুর্নীতির অভিযোগউখিয়ায় বন বিভাগের অভিযানে মাটিবর্তী ডাম্পার গাড়ী আটকজালিয়া পালংয়ে ছিনতাইকারীদের হাতে নিঃশ্ব হলেন খামার ব্যবসায়ী – আহত…উখিয়ার শীর্ষ ইয়াবা কারবারী আলী আকবর বিদেশী মদসহ আটকউখিয়ার মুছারখোলা বিট কর্মকর্তা আবছারের নেতৃত্বে পাহাড় কাটা ও বালি…

উখিয়ার হরিণমারা খালের ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজ ধ্বসের আশংকা

pic-3.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

উখিয়ার থাইংখালী হয়ে বালুখালী ও মাছকারিয়ার উপর দিয়ে বয়ে আসা হরিণমারা খালটি রেজুখালের সাথে সংযুক্ত হওয়ায় এখালে জোয়ার ভাটা হয়ে থাকে। খালের অপর প্রান্তে তুতুরবিল, পাইন্যাশিয়া, চাককাটা, দুছড়ী ও মালিয়ারকুলসহ ৫ টি গ্রামের ২০ হাজার মানুষ হরিণমারা খালের উপর প্রায় ৫ যুগ আগে নির্মিত ব্রীজের উপর দিয়ে উখিয়া সদরের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে আসছে। গত বর্ষা মৌসুমে ভারী বর্ষন ও পাহাড়ী ঢলের স্রোতে ব্রীজের অর্ধেকাংশ ধ্বসে পড়লে গ্রামবাসী নিজেরাই উদ্দেগী হয়ে কাঠের সেতু সংযোগ করে চলাচল করলেও বাকী অংশটুকু যে কোন সময়ে ধ্বসে পড়ার আশংকা করছে গ্রামবাসী।
খালের পাড়ে বসবাসরত ঠিকাদার জহির উদ্দিন চৌধুরী জানান, রাজাপালং বৃহত্তর এলাকার মানুষের একমাত্র যোগাযোগের মাধ্যম এ ব্রীজটি পানির স্রোতে ভারসর্ম্য হারিয়ে একাংশ ধ্বসে পড়লেও উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর সংস্কারের উদ্দেগ গ্রহন না করায় ৫ গ্রামের প্রায় ২০ হাজার মানুষ ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজের উপর দিয়ে চলাচল করছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল কবির জানান, ব্রীজটির উপর দিয়ে যানবাহন চলাচলের পরিবেশ না থাকায় গ্রামীন জনপদে অসংখ্য মানুষকে পায়ে হেটে যাতায়াত করতে হচ্ছে। বিশেষ করে মুমুর্ষ রোগীদের হাসপাতালে আনা নেওয়ার ক্ষেত্রে চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, বর্ষাকালে এ সেতুর উপর দিয়ে যাতায়াত করা সম্ভব হয়না। এব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল আলম লিটন জানান, ব্রীজটি পূর্ণ নির্মানের জন্য টেন্ডার আহব্বান করা হয়েছে। কবে টেন্ডার আহব্বান করা হয়েছে, কাকে ঠিকাদার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে, কখন কাজ শুরু করা হবে তা জানাতে পারেননি।

Share this post

scroll to top