Logo
শিরোনাম :
কক্সবাজারে অনলাইনে জুয়া, বাড়ছে অপরাধ উখিয়ার হলদিয়া পালংয়ে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত ২ ডেইলপাড়া সীমান্তের ইয়াবা জসিমকে গ্রেপ্তারে বেরিয়ে অস্ত্রসহ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ডেইলপাড়া সীমান্তের ইয়াবা জসিমকে গ্রেপ্তারে বেরিয়ে অস্ত্রসহ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ডেইলপাড়া সীমান্তের শীর্ষ ইয়াবা কারবারি জসিম সিন্ডিকেট গ্রেপ্তার আতংকে উখিয়ার সীমান্ত থেকে সাড়ে ৬ লাখ ইয়াবাসহ আটক ৫ উখিয়ার সীমান্ত থেকে সাড়ে ৬ লাখ ইয়াবাসহ আটক ৫ উখিয়ায় বন বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযানে দুটি অবৈধ করাত কল উদ্ধার উখিয়ায় ট্রাফিক পুলিশের অভিযানে ২২ টি অবৈধ গাড়ী আটক – ৫০ হাজার টাকা জরিমানা উখিয়ায় বন বিভাগের অভিযানে ১৮ কেজি ওজনের অজগর সাপ উদ্ধার

উখিয়ার ডেইল পাড়া সীমান্ত জনপদ ইয়াবার জোয়ারে ভাসছে

রিপোর্টার নাম:
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১

উখিয়ার ডেইল পাড়া সীমান্ত জনপদ ইয়াবার জোয়ারে ভাসছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার অভিযানে মাদকেরমত জঘন্য অপরাধের সাথে জড়িতরা একদিকে আটক হচ্ছে অন্যদিকে বন্দুযুদ্ধে মরলেও উক্ত মাদকের সাথে জড়িত গডফাদাররা বারবার রয়ে যাচ্ছে ধরা ছোঁয়ার বাহিরে। কিন্তু দেখার কেউ নেই।
স্থানীয় সচেতন মহলরা বলেন, ডেইল পাড়া সীমান্তের শীর্ষ ইয়াবা কারবারিরা আইনশৃংখলা বাহিনীর লোকজন ও স্থানীয় সচেতন মহলকে বৃদ্ধাঙ্গুলি ও ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে তারা সীমান্তের ওপার থেকে এপারে বস্তায় বস্তায় ইয়াবার চালান এদেশে নিয়ে এসে কুতুপালং ক্যাম্পসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাচার করে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। এতে দেশের শান্তিশৃংখলা, ছাত্র ও যুবসমাজ দিনের পর দিন ধ্বংস করে যাচ্ছে।
তাই অচিরেই তাদেরকে গ্রেপ্তার পূর্বক কঠিন শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার জন্য জেলা পুলিশ সুপার ও বিজিবি সেক্টর কমান্ডারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা। উক্ত ইয়াবার সাথে জড়িতরা হলেন, রাজাপালং ইউনিয়নের ডেইল পাড়া সীমান্ত এলাকার ছব্বির আহম্মদের ছেলে আন্ডার গ্রাউন্ডে থাকা শীর্ষ ইয়াবা মহাজন জসিম উদ্দিন প্রকাশ ইয়াবা জসিম, তার চেইন অব কমান্ড রোহিঙ্গা হাকিম আলী, রোহিঙ্গা নুর হোসেন, কুতুপালং রেজিঃ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের জিয়াবুল হক, ডেইল পাড়া এলাকার মৃত উলা মিয়ার দুই ছেলে মরা ছৈয়দ ও জমির সহ শীর্ষরা।
শুধু তাই নয়, তারা সীমান্ত এলাকায় প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে দিবারাত্রি সীমান্ত জনপদ দিয়ে বস্তাই বস্তাই ইয়াবার চালান এদেশে নিয়ে এসে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে রোহিঙ্গা ক্যাম্পসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাচার করে হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা।
স্থানীয় সুশিল সমাজের অভিযোগ, সীমান্ত জনপদের ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িতদের সামরাজ্য অচিরেই ধ্বংস করে তাদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা না হলে এলাকার উঠতি বয়সী ছাত্র, যুবসমাজ, পরিবেশ ও এলাকার শান্তিশৃংখলা রক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়বে। এদের মধ্যে জনপ্রতিনিধি, প্রভাবশালী, রাজনৈতিক নেতারাও উক্ত ইয়াবার সাথে জড়িত রয়েছে।
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তথ্যমতে, রোহিঙ্গাদের ইয়াবার অর্থের পুরোটাই দিচ্ছে উখিয়ার প্রভাবশালী কিছু জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক ব্যক্তি। তারা সবাই ঐ এলাকার বর্তমান ও সাবেক বিতর্কিত জনপ্রতিনিধির অনুসারী বলে জানা গেছে।
উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহম্মদ সন্জুর মোরশেদ মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে তিনি জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর