সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ১২:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জালিয়া পালং বিটে কাঠ পুড়িয়ে কয়লা তৈরির উৎসব — বিট কর্মকর্তা লাখপতি বালুখালী সীমান্তের বুজুরুজ ও রহিমকে গ্রেপ্তারে বেরিয়ে আসবে ভুলু হত্যা ও ইয়াবাসহ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য থাইংখালীতে দিবারাত্রি স’ মিলে কাঠ চিরায়ের উৎসবঃ হামলায় আহত – ২ কুতুপালংয়ে রোহিঙ্গা কর্তৃক স্থানীয়দের ধান ক্ষেত নষ্ট সোনার পাড়ায় ইয়াবা কাদের এর হামলায় কলেজ ছাত্র আহত উখিয়ায় ইয়াবা কারবারীর ধারালো দায়ের কূপে আহত মিজান ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে নির্মিত হচ্ছে পাহাড় কেখো ছৈয়দ করিমের স্থাপনা হলদিয়া পালং বিট কর্মকর্তার দুধের গাভী হেডম্যান লাবু ইনানী বনাঞ্চলে জ্বলছে আগুন, পুড়ছে বাগান উখিয়ায় বিট কর্মকর্তা সাজ্জাদের মাসিক মাষোহারায় চলছে অবৈধ স্থাপনা নির্মানের উৎসব

উখিয়া বন রেঞ্জের দুধের গাভী বিট কর্মকর্তা বজলুর রশিদ?

Spread the love

গত ১১ জুন ২০২১ইং বন সংরক্ষক চট্রগ্রাম অঞ্চলের প্রধান আব্দুল আউয়ালের স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে উখিয়া রেঞ্জের ওয়ালা বনবিটের বিতর্কিত বিট কর্মকর্তা বজলুর রশিদকে চট্রগ্রাম অঞ্চলে বদলী করা হলেও বেহাল তবিয়তে তিনি কর্মস্থলে থেকে উখিয়ার বন ভুমিকে বিরান ভুমিতে পরিনত করে গেলেও সংশ্লিষ্ট বন প্রশাসনের চোখে কালো চশমা? কারন বিট কর্মকর্তা বজলুর রশিদ উখিয়া রেঞ্জের দুধের গাভী তাই।

কক্সবাজার দক্ষিন বন বিভাগের উখিয়া রেঞ্জের সরকারি বনভুমি ধ্বংসের নৈপত্য বিট কর্মকর্তা বজলুর রশিদই যতেষ্ট বলে পরিবেশবাদীদের অভিযোগ।

সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, উখিয়া রেঞ্জের শীলেরছড়া পাহাড়তলী এলাকায় বসবাসরত তারেক, একই এলাকার ছিদ্দিক সাওদাগর, হাজম্মা রাস্তার মাথা নামক এলাকার মৃত নজির আহম্মদের ছেলে আলী আহম্মদ প্রকাশ ইয়াবা আলী, শীলেরছড়া নামক এলঅকার জামালসহ প্রায় অর্ধশতাধিক স্থাপনা নির্মানে সহযোগিতা করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিলেও দেখার কেউ নেই।
শুধু তাই নয়, উখিয়ার সর্বত্রে চলছে পাহাড় কাটা, সরকারি বনভুমিতে স্থাপনা নির্মান, সরকারি বনভুমি বেছা- বিক্রি, বালি পাচার, অবৈধ করাতকল বেপরোয়া ভাবে চলেলও নিরব দর্শকের ভুমিকায় রয়েছে উখিয়ার বন প্রশাসন।
স্থানীয়রা ক্ষুব্দ কন্ঠে বলে, ওয়ালা বনবিট কর্মকর্তা বজলুর রশিদ নামে ওয়ালা বিটের দায়িত্বে থাকলেও তিনি রেঞ্জের সর্বত্রে পাহাড় কাটা, ডাম্পার মালিক, বালি পাচার সিন্ডিকেট, সরকারি বনে অবৈধ স্থাপনা নির্মান ও করাতকল মালিক, কাঠ পাচারেরমতো জঘন্য অপরাধের সার্বিক সহযোগিতা করে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা ।

স্থানীয় পরিবেশবাদীদের অভিযোগ, বিতর্কিত বিট কর্মকর্তা বজলুর রশিদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্তপূর্বক তাকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা জরুরী। অন্যতায় উখিয়া বন রেঞ্জের বনভুমির কোন চিহ্ন বলে কিছু থাকবেনা।
বুধবার সকালে সরজমিন ও এলাকার বেশ কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা গেছে, হরিণমারা এলাকার হেডম্যান মোহাম্মদের ছেলে তাহের, সাহাব উদ্দিন ও বিট কর্মকর্তার ঘনিষ্ট সহচর ইয়াবা রশিদ, চেংখোলা এলাকার জয়নাল একই এলাকার আলমগীর দিবারাত্রি নির্বিচারে সরকারি বনভুমির পাহাড় কেটে ডাম্পার যোগে মাটি পাচার করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে সংঘব্ধ এ পাহাড় কেখোরা।

ভুমিদস্যু সাহাব উদ্দিন জানান, আমরা বিট কর্মকর্তাকে টাকা দিয়ে পাহাড় কেটে ডাম্পার যোগে মাটি পাচার করে যাচ্ছি। টাকা দিলে এদেশে সব কিছু করা সম্ভব। তাই বন বিভাগ নিয়ে মাথা ব্যাথা নেই।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত বিট কর্মকর্তা বজলুর রশিদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং ছুপ থাকতে বলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


পেইজ