Logo

মনখালীর রফিকুল হুদাকে গ্রেপ্তারে বেরিয়ে আসবে নুরবানু হত্যার মূল রহস্য

রিপোর্টার নাম:
আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০২১

দেশের বহুল আলোচিত ও উখিয়ার ক্রাইম জোন জালিয়া পালং ইউনিয়নের মনখালী এলাকার নুর বানু হত্যাকান্ডের অন্যতম আসামী মোঃ শরিফ এর ছেলে এলাকার চিহ্নিত ভুমিদস্যু ও আন্ডার গ্রাউন্ডে থাকা শীর্ষ সন্ত্রাসী রফিকুল হুদাকে গ্রেপ্তারে বেরিয়ে আসবে নুরবানু হত্যাকান্ডের মূল রহস্য।
সূত্র মতে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২ ডিসেম্বর জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ও পূর্ব – পরিকল্পিত ভাবে মনখালীর গহিণ অরণ্যে রফিকুল হুদা ও তার ভাই মোজাম্মেল হুদার নেতৃত্বে অস্ত্রধারীরা নুর বানুকে হত্যা করে বলে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে। উক্ত হত্যাকান্ডের ঘটনাকে কেন্দ্র করে নুর বানুর ছেলে আব্দুর রহিম বাদী হয়ে রফিকুল হুদাকে প্রধান আসামী করে উখিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। যার মামলা নং – ০২, তারিখঃ ২/১২/২০১৬ইং, ধারা – ৩০২/৩৪ পেনল কোড। শুধু তাই নয়, গত ৬/৯/২০২১ ইং সি আইডি কক্সবাজার ১৯৬০ নং স্বারক মূলে এক প্রজ্ঞাপন জারি করেছে পুলিশ পরিদর্শক সি আইডি কক্সবাজার জেলা পুলিশ। সূত্রমতে, উক্ত প্রজ্ঞাপনে নুর বানু হত্যা মামলার প্রধান আসামী রফিকুল হুদাসহ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার পূর্বক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য উখিয়া থানা পুলিশকে নিদের্শ প্রদান করলে ও সুচতুর ও শীর্ষ সন্ত্রাসী এখনো রয়েছে ধরা ছোয়ার বাহিরে।
শুধু তাই নয়, ভুমিদস্যু রফিকুল হুদার বিরুদ্ধে নুর বানু হত্যা মামলার ওয়ারেন্ট, মানব পাচার, চেক প্রতারনা, জমি সংক্রান্ত মামলাসহ ডজনখানিক মামলার বুঝা মাথায় নিয়েও থেমে নেই রফিকুল হুদা । তার লেলিয়ে দেয়া সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে প্রতিনিয়ত এলাকার নিরহ লোকজনের সহায় সম্বল ও বসতভিটে জোর পূর্বক কেড়ে নিয়ে তাদেরকে পথে বসাচ্ছে বলেও জানা গেছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ভুক্তিভোগীরা জানান, তার অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে এলাকার কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পাইনা। যদি কেউ তার অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে তাহলে তার উপর নেমে আসে চরম অত্যাচার ও নির্যাতন। তাই তার বিরুদ্ধে এলাকার কেউ মুখ খুলেনা।
স্থানীয় সচেতন মহলের দাবী, অচিরে রফিকুল হুদাকে গ্রেপ্তার পূর্বক কঠিন শাস্তির আওতায় নিয়ে এসে এলাকার শান্তি শৃংখলা ফিরিয়ে আনার জন্য জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

অভিযুক্ত রফিকুল হুদা বলেন, তার বিরুদ্ধে অন্যান্য মামলা থাকলেও হত্যা মামলা নাই বলে তিনি দাবী করেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য কামাল উদ্দিনের সাথে মুঠফোনে বক্তব্য নেওয়ার চেষ্টাকালে তিনি বলেন, আতœীয় স্বজন লোক বাদ দেন ভাই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর