উখিয়ায় মালিকানাধীন জায়গায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মানে বাধা

vv-1.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের ওয়ালা পালং মৌজার বিএস ১৬ নং খতিয়ানের ফজলুল হকের ছেলে সালাহ উদ্দিন গংদের ৮ শতক জমিতে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মান করার জন্য মাটি ভরাট করেছে। এতে জমিনের মালিক গণ বাধা প্রদান করেন। এব্যাপারে ভুমি অধিকরন কর্মকর্তা কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সালাহ উদ্দিন গংয়েরা ভুল সংশোধনের আবেদন জানিয়ে একটি আবেদন করেছেন বলে জানা গেছে।
সূত্র জানা যায়, ২ কোটি টাকা ব্যায়ে উখিয়ার সদর উপজেলা গেইডের পাশে একটি মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মান কাজ শুরু করেছে ঠিকাদার। সরকার নুরুল হক, আবু তৈয়ব, আব্দুল মঞ্জুর ও মোঃ ইসহাক থেকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় শাখা ভুমি অধিগ্রহন এল এ মামলা নং ১১/২০১৬-১৭ ফরম গ ৪ বিধি ১ উপ বিধি ৭ ধারামত নোটিশ প্রদান করেন। এবং ৮ শতক জমি অধিগ্রহন করেন সরকার।

উল্লেখিত ৪ ব্যাক্তিকে জেলা প্রশাসক ৭ ধারামতে ক্ষতি পূরনের জন্য নোটিশ প্রদান করলেও যেখানে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মান করা হচ্ছে মৃত ফজলুল হকের ছেলে সালাহ উদ্দিন গংদের ৭ ধারামতে কোন নোটিশ দেয়নি। প্রকৃত জমির মালিক সালাহ উদ্দিন গং। যার কারনে ওই জমিতে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনের কাজ সালাহ উদ্দিন গংয়েরা বাধা প্রধান করিলে কাজ বন্ধ হয়ে যায়। ফজলুল হকের ছেলে সালাহ উদ্দিন জানান, আমার জমি অধিগ্রহন না করে কি ভাবে ভবন নির্মান করতেছে। এ ব্যাপারে স্থানীয় সংসদ আব্দুর রহমান বদি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরীকে অবহিত করা হয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরী জানান ঘটনার বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Share this post

scroll to top