চোয়াংখালীর অস্ত্র কারিগর আবুল হাশিম ফের বেপরোয়া

ww.jpg

শাকুর মাহমুদ চৌধুরী উখিয়া ::

কক্সবাজারের উখিয়ার চোয়াংখালী এলাকার অস্ত্রকারিগর আবুল হাশেম ফের বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে জানা গেছে।
অনুসন্ধানে জানা যায়, উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের চোয়াংখালী গ্রামের মৃত বাচা মিয়ার পুত্র অস্ত্রসহ একাধিক মামলার আসামী আবুল হাশিম এলাকার উঠতি বয়সী যুবকদের নিয়ে একটি বৃহত্তর সিন্ডিকেট গড়ে তোলে চোয়াংখালী এলাকার গহীন অরণ্যে তাদেরকে অস্ত্রের ট্রেনিং দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তার অবাদে অস্ত্রের ব্যবহারে এলাকায় আতংক বিরাজ করছে বলেও জানা যায়।

সম্প্রতি র‌্যাব ৭ কক্সবাজার চোয়াংখালীর গহীন অরণ্যে অস্ত্র কারখানায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ দেশীয় তৈরি অস্ত্র, গুলি ও অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। আটক করা হয় অস্ত্র তৈরির কারিগর আবুল হাশিমকে। আটককৃত অস্ত্র কারিগরকে উখিয়া থানায় সোপর্দ করে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে। যার মামলা নং- ১, তারিখ- ০১/০৯/২০১৬ইং।

এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কয়েকজন পালিয়ে গেলেও অস্ত্র কারখানার কারিগর উখিয়া চোয়াংখালী এলাকার মৃত বাচা মিয়ার ছেলে আবুল হাশিম (৭৫) কে আটক করা হয়। পরে অস্ত্র কারখানায় তল্লাশী চালিয়ে ৬টি সক্রিয় একনালা বন্দুক, ১টি ওয়ান শুটার গান, ৩ টি পিস্তলের আংশিক অংশ, ৪টি তাজা কার্তুজ, অস্ত্র তৈরীর ড্রিল মেশিন ১টি, হাতুড়ী ২ টি, একনালা বন্দুক তৈরীর পাইপের অংশ ১০টি, সেলাই রেন্স ১টি, হেসকু ব্লেড ৮টি, করাত ১টি, রেত ২টি, স্ক্রুডাইভার ২টি, পাস ২টি, গ্রীভ স্পেনার ১টি ও এয়ার মেশিন ১টি উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় সচেতন মহল জানান আবুল হাশিম সম্প্রতি র‌্যাবের হাতে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার হয়ে দীর্ঘ দিন জেল হাজত শেষে জামিনে মুক্ত হয়ে ফের বৃহত্তর মিশন হাতে নিয়ে অস্ত্র তৈরির কাজ বেপরোয়া ভাবে চালিয়ে যাচ্ছে। তাই অচিরেই অস্ত্র কারিগর আবুল হাশিকে গ্রেপ্তার পূর্বক কঠিন শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার জন্য জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। উখিয়া থানার ওসি আবুল খাইর বলেন, তদন্তপূর্বক অস্ত্র কারিগর আবুল হাশিমকে গ্রেপ্তারের আওতায় নিয়ে আসা হবে বলে তিনি জানান।

Share this post

scroll to top