সংবাদ শিরোনাম

পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী গ্রেপ্তার

pic-a.jpg

শাকুর মাহমুদ চৌধুরী উখিয়া::

কক্সবাজারের উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়রম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী ৯ মে বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে কক্সবাজার আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে, বিজ্ঞ আদালত চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরীর আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে জেল হাজতে প্রেরন করেন।
অনুসন্ধানে জানা যায়, উপজেলার সীমান্তবর্তী পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালী তাজনিমারখোলা রোহিঙ্গা বস্তি সংলগ্ন ফকির আহম্মদের ধান ক্ষেতের জমিতে গত ২ মে বুধবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে ৪ জন রোহিঙ্গা যুবক ইয়াবা সেবনকালে পার্শ্ববর্তী রাস্তা দিয়ে একই এলাকার ফকির আহম্মদ, মৃত আব্দুল জলিলের পুত্র আব্দুস ছালাম ও স্ত্রী আমেনা খাতুন বাড়ী যাওয়ার পথে বাধা প্রধান করিলে ক্ষিপ্ত হয়ে উক্ত মাদক সেবী রোহিঙ্গা যুবকরা উল্লেখিতদের হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে। উক্ত হামলার ঘটনা রোহিঙ্গা বস্তি ও এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ফের স্থানীয় ও রোহিঙ্গাদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরে খবর পেয়ে তাজনিমারখোলা ক্যাম্প পুলিশ ও স্থানীয় চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরী দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টাকালে সন্ত্রাসীরা পুলিশের একটি শর্টগান ছিনিয়ে নিয়ে পুলিশ সদস্যদের উপর হামলা চালিয়ে ৪ পুলিশ সদস্যকে গুরুতর আহত করে। আহত পুলিশ সদস্যরা হলেন, মোঃ ইলিয়াছ হোসেন, শাওন আহম্মদ, ইমন কবির ও ইয়াছিন খান। উক্ত হামলা ও অস্ত্র ভাংচুরের ঘটনায় উখিয়া থানা পুলিশের এস আই আব্দুর রাজ্জাক বাদী হয়ে পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম গফুর উদ্দিন চৌধুরীকে প্রধান আসামী করে প্রায় ৩০০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী কওে উখিয়া থানায় একটি মামলা রুজু করেন। যার মামলা নং – ৩, তারিখঃ ২/৫/২০১৮ইং। এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উখিয়া সার্কেল) চাইলাউ মার্মা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু হয়েছে বলে তিনি জানান।

Share this post

scroll to top