হিজোলীয়ার বড় ভাই বাবুলসহ আটক ৩ – ছোট ভাই আবছার সিন্ডিকেট বেপরোয়া

.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের হিজোলীয়া ইয়াবা বাজারের দায়িত্ব প্রাপ্ত ৩ ইয়াবা পাচারকারী বিপুল পরিমান ইয়াবাসহ চট্রগ্রাম নতুন ব্রীজ ও কক্সবাজার ডিবি পুলিশের হাতে হিজোলীয় তেলীপাড়া গ্রামের মৃত মোঃ ইসলামের পুত্র বাবুল, হেলাল ও খয়রাতি পাড়া গ্রামের আলী আহম্মদের পুত্র আতাউল্লাহ আটক হয়েছে বলে জানা গেছে। উক্ত ইয়াবা পাচারকারীরা আটক হওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে হিজোলীয়া এলাকার শফিকুর রহমানের পুত্র মীর জাফর প্রকাশ ইয়াবা জাফর, তেলী পাড়া গ্রামের মৃত মোঃ ইসলামের পুত্র আটক বাবুলের ছোট ভাই আবছার, আলী আহম্মদের পুত্র মোকতার আহম্মদ প্রকাশ সিএনজি মোকতার, মন্সুর আলীর পুত্র আকতার, ইসলাম ড্রাইভারের পুত্র নুরুল হাকিম প্রকাশ ইয়াবা হাকিম ও থাইংখালী হাকিম পাড়া গ্রামের হামিদুল হকের পুত্র হুমায়ুন প্রকাশ ইয়াবা হুমায়ুনসহ শীর্ষ গ্রেপ্তার আতংকে ঘুরছে বনে জঙ্গলে বলে জানা গেছে। এলাকাবাসীরা জানান, জেলা ডিবি পুলিশ ও চট্রগ্রাম ডিবি পুলিশ ইয়াবা বাবুলসহ ৩ পাচারকারীকে ইয়াবাসহ আটক করলেও তার চেইন অব কমান্ড ছোট ভাই ইয়াবা আবছারের নেতৃত্বে শীর্ষরা হিজোলীয়া ইয়াবা বাজার থেকে লাখ লাখ পিস ইয়াবা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পাচার করে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। আটক ৩ পাচারকারীকে জামিনে মুক্ত করতে কোটি টাকার মিশন নিয়ে সিন্ডিকেটের অন্যতম গডফাদার মীর জাফর ও আবছার দেশের উচ্চ আদালতে ঘুরছে বলে জানান তারা। স্থানীয় সচেতন মহলের দাবী, থাইংখালী ইয়াবা বাজার নিয়ন্ত্রক হুমায়ুন, মীর জাফরসহ শীর্ষ গডফাদারদের দ্রুত গ্রেপ্তারের আওতায় নিয়ে আসা না হলে এলাকার উঠতি বয়সী ছাত্র ও যুবসমাজকে রক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়বে বলে তারা মনে করেন। তাই তাদের গ্রেপ্তারে জেলা পুলিশ সুপার ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এ ব্যাপারে উখিয়া থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িতদের তদন্তপূর্বক গ্রেপ্তারের আওতায় নিয়ে এসে এলাকার শান্তি শৃংখলা ফিরিয়ে আনা হবে বলে তিনি জানান।

Share this post

scroll to top