প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

images-1.jpg

অনলাইন পত্রিকা দেশ টুডেটে প্রকাশিত“ অধরা কালা ফারুক কালো টাকায় দেশের চলামান মাদক দ্রব্য অভিযানকে বৃদ্ধঙ্গুল দেখিয়ে আওয়ামীলীগের ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে কোটি টাকার খাতায় নাম লিখিয়েছে” শিরোনাম সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এ সংবাদে আমি হতবাগ হয়ে গেছি। পাশাপাশি যারা এ সংবাদ পড়েছে তারাও বিব্রতভোদ করছে। একজন সংবাদকর্মী এমন মিথ্যাচার কি ভাবে করতে পারে তা নিয়ে এলাকায় চলছে কঠোর আলোচনা সমালোচনা ও দিক্কার। আমি উক্ত বানোয়াট, উদ্দশ্যপ্রনোদিত ও ভিত্তিহীন সংবাদে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য এলাকাবাসী তথা আইনশৃংখলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষন করছি।
মূলত আমি নিম্ন স্বাক্ষরকারী জালিয়াপালং ইউনিয়নের সোনাইছড়ি গ্রামের একজন সুনামধন্য আওয়ামী পরিবারের সদস্য হই। আমার পিতা সাবেক ইউপি সদস্য হাজী আবুল বশর মেম্বার প্রায় ১০ বছর যাবত এলাকায় প্রতিনিধিত্ব করে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছে। আমার পিতা একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে স্বাধীনতাযদ্ধ চলাকালীন সময়ে দেশকে শক্রুমুক্ত করতে ব্যাপক অবদান রেখেছে। তারই উত্তরশুরি হিসাবে আমি এলাকায় জনকল্যানমূলক কাজ করে আসছি। এলাকার যে সমস্ত হতদরিদ্র পরিবার টাকার অভাবে মেয়ে বিয়ে দিতে পারছেনা তাদেরকে আর্থিক সহযোগিতা করছে। গ্রামে অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছি পাশাপাশি মাদক সেবী, জোয়াড়ী, অস্ত্রধারীচোর ডাকাত ও সন্ত্রাসীদের আতংক হিসাবে আমি গ্রামে খ্যাতি অর্জন করেছি। যা দেখে প্রতিপক্ষ একটি মহল হিংসা প্রনায়ন মনোভাব নিয়ে আমাকে জড়িয়ে অপপাচার ও কুৎসা রটনা করছে। পাশাপাশি তারা আমাকে বেশ কয়েকবার প্রান নাশেরও হুমকি প্রদর্শন করেছে। তথাপিও আমি আমার কর্তব্য কাজ থেকে বিন্ধু মাত্রও বিচলিত হয়নি। তারা আমার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা দাবী করে ফেইজবুকে ষ্টাটেস দিয়ে বলেছে আমাকে দুনিয়া থেকে চির বিদায় নিতে হবে। তারা ০১৮৩৮১৩৬৫৩৩ মুঠোফোনের নাম্বার থেকে বারবার খুন জখম করে লাশ ঘুম করে ফেলার হুমকি প্রদর্শন করায় আমি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছি। এ নিয়ে আমার পরিবার আত্নীয় স্বজন সার্বক্ষনিক দুচিন্তাগ্রস্তের মধ্যে দিনাতিপাত করার কারনে আমার সামাজিক ও পারিবারিক জীবনে প্রভাব পড়েছে। ঐ মহলটি আমাকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ফাঁসানোর জন্য আলজামিয়াতুল উলামায়ে সম্পৃত্ততার কথা বলেছে। বাংলাদেশ জামিয়াতুল উলামা গত ঈদের সময় এলাকার হতদরিদ্রদের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরন করেছে। এলাকার জনপ্রতিনিধি হিসাবে আমার পিতা আবুল বশর মেম্বার সেখানে উপস্থিত ছিলেন। এ নিয়ে প্রতিপক্ষ মহল গোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে হুশিয়ারি উচ্চারন করছি বভিষ্যতে এধরনের মানহানিকর কাল্পনিক অপপাচার চালালে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে।

প্রতিবাদকারী,
ফারুক আহম্মদ সাওদাগর
পিতাঃ আবুল বশর মেম্বার
সোনাইছড়ি, জালিয়াপালং উখিয়া কক্সবাজার

Share this post

scroll to top