উখিয়ায় সনাতনী ধর্মালম্বী স্কুল ছাত্রী অপহরন

11-2.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

উখিয়ার থাইংখালী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী অর্পিতা শর্মা (১২) বৃহস্পতিবার স্কুল ছুটি শেষে দুপুর ১ টার দিকে অপহ্নত হয়েছে। অপহরনকারী চক্র ০১৮৬১৬৩৩০৬৯ নাম্বারে মুঠোফোনে মুক্তপন হিসাবে ১ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করেছে। অর্পিত শর্মা থাইংখালী ঘোনার পাড়া গ্রামের সজল শর্মার মেয়ে। এব্যাপারে থানায় অভিযোগ করার ২৪ ঘন্টায়ও অর্পিতা শর্মার কোন খোজ খবর না পাওয়াতে তার মা বাবা ও স্বজনদের আহাজারিতে এলাকায় এক হ্নদয় বিদারক দৃশ্যর অবতারনা হয়। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানান, শনিবারের মধ্যে অর্পিতা শর্মাকে উদ্ধার করা সম্ভব না হলে অপহরন মামলা রুজু করা হবে। অভিযোগের সূত্রে জানা যায়, পালংখালী ইউনিয়নের তেলখোলা গ্রামের আনোয়ারুল ইসলামের বখাটে ছেলে মোঃ ফারহাদ ( ২১) স্কুলে আসা যাওয়ার সময় তার মেয়েকে উক্তক্ত্য করে কু- প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। অর্পিতা শর্মা তার কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় কৌশলে অপহরন করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। অর্পিতা শর্মার পিতা সজল শর্মা জানান, অপহরনকারী বখাটে ফরহাদের মামা হামজালাল শুক্কুবার সন্ধায় ০১৮৪৩৬৫৪৫৮৬ নাম্বারে ফোন করে জানায় অর্পিতা শর্মাকে রেজু বিজিবি আটক করেছে। তাদের কথামত বিজিবি ক্যাম্পে গিয়ে কোন খোজখবর পাওয়া যায়নি। এঘটনায় হামজালালকে আটক করা হলে তার মেয়েকে উদ্ধার করা সম্ভব হবে বলে সজল শর্মা দাবী করেন। ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরী অপহ্নত স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধারের জন্য উখিয়া থানা প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন।

Share this post

scroll to top