রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গোলাগুলি নিহত ১

Jushan-pic-10-08-18-600x337.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

টেকনাফের লেদা অনিবন্ধিত রোহিঙ্গা বস্তিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে এক রোহিঙ্গা পাহারাদার যুবক নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থল হতে লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।
জানা যায়, শুত্রুবার দুপুর ৩টার দিকে উপজেলার হ্নীলা অনিবন্ধিত লেদা রোহিঙ্গা বস্তির এফ ব্লকের মসজিদের সামনে ১৫৬নং রুমের বাসিন্দা মো. ইসলামের পুত্র ও পাহারাদার মো. আয়াছের (২০)কে দাঁড়িয়ে আলাপরত অবস্থায় স্থানীয় সন্ত্রাসী ছৈয়দ আলম (৩৫) ও রিদুয়ান (৩২) সহোদরের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ এসে বুকের মধ্যে বন্দুক ঠেকিয়ে গুলি করে বীরদর্পে চলে যায়। উপস্থিত লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় আয়াছেরকে দ্রুত স্থানীয় ক্যাম্প হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করে। কর্তব্যরত চিকিৎসক ঐ যুবককে মৃত ঘোষণা করেন। এই নৃশংস ঘটনার খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ রনজিত কুমার বড়ুয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এই ব্যাপারে স্থানীয় রোহিঙ্গা বস্তির চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব জানান, নিরাপত্তা বাহিনী ও আইওএমের সহায়তায় ক্যাম্পের যাবতীয় অপরাধ দমনের জন্য গত ২ মাস ধরে একটি স্বেচ্ছাসেবী বাহিনী গঠন করা হয়। এরফলে মাদক চোরাচালান, সেবন ও বখাটেদের উৎপাত বেড়ে যায়। এতে উক্ত চক্র ক্ষুব্ধ হয়ে এই ঘটনার আশ্রয় নিয়েছে। এদিকে একাধিক সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় বখাটেরা প্রায় সময় রোহিঙ্গা ক্যাম্প ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে থাকে। এসব কারণে আতঙ্কে দিনাতিপাত করছে জনসাধারণ।
টেকনাফ মডেল থানার অফিসার্স ইনচার্জ রনজিত কুমার বড়ুয়া জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশ পোস্ট মর্টেমের জন্য উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

Share this post

scroll to top