তুমব্রু সীমান্তের ওপারে রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরানোর সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে রেডক্রস

Pic-ukhiya-tomboro-Red-Corsh-1.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে সীমান্তের তুমব্রু জিরো লাইনের খালের ওপারে ঝুপড়ি বেঁধে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে ফিরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শুরু করেছে আন্তর্জাতিক রেডক্রস কমিটি। প্রাথমিক ভাবে বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় রাখাইন রাজ্যের ঢেকুবনিয়া হয়ে সীমান্তের তুমব্রু কোনারপাড়া এলাকা পরিদর্শন করেছে রেড ক্রসের ৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। এসময় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা শিবিরে অবস্থানকারী রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ ও তাদের প্রতিনিধিদের সাথে কাটা তাঁরের বেড়া ঘেষে দাড়িয়ে দীর্ঘক্ষণ কথা বলেন।

শূণ্যরেখায় অবস্থানকারী রোহিঙ্গা নেতা দিল মোহাম্মদ জানান, রেডক্রসের প্রতিনিধিরা জিরো লাইনের অবস্থানকারী রোহিঙ্গাদের রাখাইন রাজ্যের মংডু জেলার তংপ্লাইও এলাকার আশ্রয় শিবিরে নিয়ে যাওয়ার কথা জানায়। সেখানে রোহিঙ্গাদের খাদ্য, চিকিৎসা ও শিক্ষা সহায়তা দেয়ার কথাও জানায় প্রতিনিধিদল। প্রতিনিধিদল জিরো লাইনের আশ্রিত রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের অংশে অবস্থান করায় এখন থেকে মিয়ানমারের রেডক্রসের পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা দেয়ার আশ^স্থ করেন রোহিঙ্গাদের।

শূণ্যরেখার রোহিঙ্গা মৌলভী আরফাত, আবদুল আলিম সহ একাধিক রোহিঙ্গা জানান, আমরা প্রতিনিধিদলকে সহায়তার পরিবর্তে অধিকার আদায়ের দাবী জানানো হয়। এছাড়াও নিরাপদে স্বদেশে ফেরত যেতে চায় বলে জানান তারা। রোহিঙ্গাদের সাথে দীর্ঘক্ষণ কথা বলে রেড ক্রসের প্রতিনিধি দলটি মিয়ানমারে ফিরে যায়।

উল্লেখ্য যে, গত বছরের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর দেশটির সেনাবাহিনী, বিজিপি ও রাখাইন উগ্রপস্থিরা ব্যাপক সহিংসতা চালায়। এরপর সেখান থেকে জীবন বাঁচাতে ৭ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পাড়ি জমায়। এ সময় প্রায় ৫ হাজার রোহিঙ্গা অবস্থান নেয় বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু সীমান্তের নো-ম্যান্স ল্যান্ডে।

Share this post

scroll to top