বেলুন ও কবুতর উড়িয়ে উদ্বোধন করবেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোঃ নাসিম এমপি

pic-3-3.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

মানবতার মা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উখিয়ায় আশ্রীত রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে সংক্ষিপ্ত জনসভায় বলেছিলেন, রোহিঙ্গাদের খাদ্যবস্ত্র বাসস্থানের পাশাপাশি স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষে উখিয়ায় একটি অত্যাধুনিক হাসপাতাল নির্মানের আস্বস্থ করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতাই উখিয়া স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কেন্দ্রের সন্নিকটে নির্মিত হয়েছে ১৫০ শয্যার“ নি মা নি শু” নামের নিরাপদ মা নিরাপদ শিশু সমন্বিত মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পূর্বের ৫০ শয্যা, নাসা গ্রুপ নির্মিত ৫০ শয্যা ও রোহিঙ্গা স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক নির্মিত ৫০ শয্যাসহ ১৫০ শয্যার এ হাসপাতাল নির্মানের মাধ্যমে উখিয়ার আড়াই লক্ষাধিক মানুষ ও ৮ লক্ষাধিক রোহিঙ্গার উন্নত চিকিৎসার দ্বার উম্মোচিত হচ্ছে আজ। হাসপাতাল উদ্বোধনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যাবতীয় আয়োজন সম্পন্ন করেছে।
আজ শুক্রবার বেলা ১১ টার দিকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী মোঃ নাসিম এমপি উখিয়া হাসপাতালে প্রদার্পন করবেন। মন্ত্রীকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরন করে নেবেন প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা বৃন্দু। পরে মন্ত্রী কবুতর ও বেলুন উড়িয়ে নব নির্মিত ১৫০ শয্যা হাসপাতাল উদ্বোধন করে হাসপাতালে স্বাস্থ্য সেবার এই প্রতিষ্টানটি ঘুরে দেখবেন। পরে হাসপাতাল চত্বরে তৈরি করা বিশাল পেন্ডেলে সুসজ্জিত মঞ্চে সর্বসাধারনের উদ্দেশ্য বক্তব্য রাখবেন। এসময় সংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদি, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব বাবলু কুমার সাহা, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এম এ মোহী পিএসসি প্রধান প্রকৌশলী স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর, প্রফেসার ডাঃ মোঃ আবুল হাশেম লাইন ডায়েরেক্টও সিবিএইচ সি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মহাখালী ঢাকা, ডাঃ মোঃ আবুল কাশেম পরিচালক স্বাস্থ্য চট্রগ্রাম বিভাগ চট্রগ্রাম, এস এম সরওয়ার কামাল অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পর্যটন ও প্রটোকল কক্সবাজার, খন্দকার মোঃ খায়রুল আলম ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাসা গ্রুপ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী, সাধারন সম্পাদক ও রাজাপালং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুল মন্নান। অনুষ্টানে সভাপতিত্ব করবেন ডাঃ আব্দুস ছালাম সিভিল সার্জন কক্সবাজার।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুল মন্নান জানান, নাসা গ্রুপ কর্তৃক নির্মিত হাসপাতালে যাবতীয় চিকিৎসা সরঞ্জমাদি সরবরাহ দেওয়া হলেও চিকিৎসক নার্স ও আয়াসহ প্রয়োজনীয় সংখ্যক কর্মচারী দেওয়া হয়নি। তিনি বলেন, তার হাসপাতালে ৬ জন চিকিৎসকের পদ শূণ্যে। ১৪ জন নার্সের মধ্যে রয়েছে ১১জন। তৃতীয় শ্রেনীর ৬০ জন কর্মচারীর মধ্যে ২১ জন কর্মচারী দিয়ে হাসপাতাল চালানো হচ্ছে। বিশেষ করে চতুর্থ শ্রেনীর ১৯ জন কর্মচারীর মধ্যে ৮ জন কর্মচারী দিয়ে হাসপাতালের আনুসাঙ্গিক কার্যক্রম চালাতে গিয়ে স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম বিঘিœত হচ্ছে। স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জনস্বার্থে ১৫০ শয্যা হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসা সেবা প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক চিকিৎসকসহ অন্যান্য কর্মচারী নিয়োগ দেওয়ার জন্য প্রধান অতিথির হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Share this post

scroll to top