সংবাদ শিরোনাম
উখিয়ার জামতলী শফি উল্লাহ কাটা ক্যাম্প বাজারের খাস কালেকশনের নামে…থাইংখালীতে সরওয়ারের নেতৃত্বে সরকারি বনভুমিতে নির্মিত হচ্ছে স্থাপনামানবপাচারকারী জালাল জুতার মালা ও কোদাল দিয়ে মাথার চুল উপড়িয়ে…থাইংখালীতে সরওয়ারের নেতৃত্বে সরকারি বনভুমিতে নির্মিত হচ্ছে স্থাপনাকক্সবাজারে গণবদলির পর নতুন ওসি-এসআইসহ ৩৭ জনকে পোস্টিংকক্সবাজার থেকে শীর্ষ কর্মকর্তাসহ পুলিশের ১৩৪৭ সদস্য বদলিরোহিঙ্গাদের বাংলাদেশী জাতীয় পত্র বানিয়ে দিচ্ছে একটি সিন্ডিকেট, জড়িত শিক্ষক…নাফ নদীতে গোলাগুলি করে ৫০ হাজার ইয়াবা উদ্ধারউখিয়ায় ইয়াবাসহ দুই রোহিঙ্গা আটকউখিয়ার চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার ঘটনার এক বছর

উখিয়ায় রেজিঃ বিহীন সামাজিক সংগঠনের নাম ভাঙ্গীয়ে জমি দখলের চেষ্টা

WW.jpg

রফকি উদ্দনি বাবুল উখিয়া::

উখিয়ার পিনজীরকুল গ্রামের বাদশা মিয়া সওদাগরের ছেলে মোঃ আবু রাসেলের ৫০ বছরের ভোগ দখলীয় ৮ শতক আবাদী জমি প্রতিপক্ষরা রেজিঃ বিহীন সামাজিক সংগঠনের সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে জবর দখল করেছে। ইতিমধ্যে উক্ত বিতর্কিত জমিতে পাকা ভবন তৈরির জন্য নির্মান সামগ্রী মজুদ করার ঘটনা নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে তুমুল উত্তেজনা বিরাজ করছে। এঘটনা নিয়ে জমির সত্ববান মোঃ আবু রাসেল বাদী হয়ে পিনজীরকুল গ্রামের ভুঁইপোড় সংগঠনের সদস্য নামধারী মোঃ ভুলু (৪৫), আলমগীর (৩০), শফিউল আলম (৩০), নুরুল আলম প্রকাশ মনিয়া, শামীম, মাহমুদুল হকসহ ১২ জনকে আসামী করে সোমবার উখিয়া থানায় একটি অভিযোগ করেছে।
আবু রাসেল জানান, রাজাপালং মৌজার পিনজীরকুল গ্রামে তাদের জোত জমি সংলগ্ন বন ভুমির পরিতাক্ত সাড়ে ৮ শতক জমি পরিচার্য্য করে তা আবাদী জমি হিসাবে গড়ে তোলে সেখানে শাক সবজি চাষাবাদ করে আসছিল প্রায় ৫০ বছর ধরে। প্রতিপক্ষরা উক্ত জমিটি কৌশলে দখল করার চেষ্টা করে আসছিল দীর্ঘ দিন থেকে। এতে তারা ব্যর্থ হয়ে জোট বেধে একটি অস্থিত্বহীন সামাজিক সংগঠনের রাতারাতি সাইনবোর্ড টাঙ্গিয়ে উক্ত জমিতে একটি কাচা ঘর তৈরি করে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট একটি অভিযোগ করলে তিনি ঘটনাটি তদন্ত করে আইননুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য ভুমি প্রশাসনকে নির্দেশ দেন। ইতিমধ্যে প্রতিপক্ষরা উক্ত জমির উপর জোরপূর্বক পাকা ভবন নির্মানের কাজ শুরু করেছে। এব্যাপারে উখিয়া থানা পুলিশের একটি দল সোমবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বিরোধীয় জমিতে কোন প্রকার স্থাপনা তৈরি না করার জন্য নির্দেশ দেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা সহকারী উপ- পরিদর্শক মোঃ শাহ আলম জানান, উভয় পক্ষের মধ্যে সমঝোতা না আসা পর্যন্ত উক্ত জমিতে স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেন।

Share this post

scroll to top