মাদারবনিয়ার ছিদ্দিকের বিরুদ্ধে জাল ভিসা দিয়ে ৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

crime46.jpg

শাকুর মাহমুদ চৌধুরী উখিয়া ::

উখিয়ায় সহজ সরলতার সুযোগ নিয়ে স্থানীয় এক প্রতারক সৌদিয়া নিয়ে যাওয়ার কথা বলে জাল ভিসা প্রদান করে ৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এঘটনাটি ঘটেছে জালিয়াপালং ইউনিয়নের মাদারবনিয়া গ্রামে। এব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত বদিউল আলম বাদী হয়ে বুধবার উখিয়া থানায় একটি অভিযোগ করেছে।
থানায় প্রদত্ত অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাদারবনিয়া গ্রামের মৃত অলি আহম্মদেও ছেলে ছিদ্দিক আহম্মদ ও জাগির আহম্মদ দুই সহোদর অভিনব প্রতারনার মাধ্যমে সহজ সরল বদিউল আলমকে সৌদিয়া নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ভিসা বাবদ ৫লক্ষ টাকা চুক্তিবদ্ধ হয়। বদিউল আলম জানান, প্রথম কিস্তিতে ৪ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ছিদ্দিক আহম্মদকে দেওয়া হয়। বাকী ৫০ হাজার টাকা চুক্তি মোতাবেক গত রমজানের আগে জাগির আহম্মদকে পরিশোধ করে পাসপোর্ট ও মেডিকেল কপি প্রদান করি। রমজানের আগে সে ভিসা দিতে না পারায় পরবর্তী ১৬/৭/২০১৮ইং তারিখে ভিসা দেওয়ার অঙ্গিকার করে। ওই তারিখে দুই সহোদর শটামির আশ্রয় নিয়ে একটি জাল ভিসা প্রদান করেন। যাহা জনসম্মূখে ভেজাল ভিসা বলে প্রমানিত হলে ছিদ্দিক আহম্মদ ও জাগির আহম্মদ আমাকে ৫ লক্ষ টাকা ফেরত দেওয়ার আশ^স্থ করে। আজ দেব কাল দেব এভাবে কালক্ষেপন করতে থাকলে বদিউল আলম স্থানীয় মেম্বারের নিকট আশ্রয় নেয়। ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হক জানান, ছিদ্দিক আহম্মদকে নোটিশ দিয়ে ডাকা হলেও সে বিচার স্থলে হাজির হয়নি। যে কারনে বদিউল আলমকে প্রাপ্য টাকার একটি সালীশি নামা প্রদান করা হয়েছে। এব্যাপারে উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানান, ঘটনাটি তদন্ত করে আইননুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য পুলিশকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

Share this post

scroll to top