উখিয়ায় পরিবেশ আইনে দায়েরকৃত মামলার চার্জশীট থেকে ৯ জন বেকসুর খালাস

MM.jpg

শাকুর মাহমুদ চৌধুরী উখিয়া ::

পাহাড় কাটা, নির্বিচারে বালি উত্তোলন, রেজুখালের গাইডওয়াল ধ্বংসসহ প্রকৃতির উপর আঘাত হানায় দোষী সাব্যস্ত করে ২০১৫ সালে তৎকালিন কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সর্দার শরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে ১৭ জনকে আসামী করে পরিবেশ আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। উক্ত মামলা দীর্ঘ সময় সরজমিন তদন্ত সাপেক্ষে ৯ জনের বিরুদ্ধে কোন প্রকার অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় তদন্তকারী কর্মকর্তা মূল চার্জশীট থেকে ৯জনকে বাদ দিয়েছে। এরা হচ্ছে জালিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসাইন চৌধুরী, শহিদুল্লাহ কায়সার, আবু কায়সার, মোজাম্মেল মেম্বার, জাহেদ মেম্বার, মোস্তাক আহম্মদ, মাহবুবুর রহমান, আব্দুল্লাহ ও হেলাল উদ্দিন।
কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ ৪ বছর যাবৎ মামলাটি চট্রগ্রাম পরিবেশ অধিদপ্তর আদালতে চলে আসছিল। উক্ত মামলা সরজমিন তদন্ত, সাক্ষ্যগ্রহন শেষে চার্জশীট গঠনের জন্য কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালককে নির্দেশ দেন। তিনি সোমবার ধার্য্য তারিখে অভিযুক্তদের উপস্থিতিতে দীর্ঘ শুনানী শেষে ১৭ জন আসামীর মধ্যে থেকে ৯ জনের অনুকুলে পরিবেশের ক্ষতিকরারমতো কোন প্রকার তথ্যপ্রমানাদি না পাওয়াতে ওই ৯ জনকে চার্জশীট থেকে বাদ দিয়ে বাকী ৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট গঠন করেছেন বলে জানা গেছে। এব্যাপারে, কক্সবাজার পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সাইফুল আশরাফের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, চার্জশীট থেকে কিছু লোকজনকে বাদ দেওয়া হয়েছে। যাদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ প্রমানিত হয়নি।

Share this post

scroll to top