সংবাদ শিরোনাম

উখিয়ায় তীব্র যানজটের ফাঁকে শিক্ষার্থীদের সড়ক পারাপারের চেষ্টা

Ukhiya-Pic-30.10.2018.jpg

কায়সার হামিদ মানিক উখিয়া ::

ট্রাফিক পুলিশের অবহেলার কারণে উখিয়া ষ্টেশনে সার্বক্ষণিক যানজট লেগেই থাকে। বিশেষ করে উখিয়া উচ্চ বিদ্যালয় গেইট সংলগ্ন এলাকায় এলোমেলো টমটম পার্কিংয়ের কারণে সৃষ্ট যানজটের ফাঁকে ফাঁকে কচিঁকাচা শিক্ষার্থীদের ঝুঁকি নিয়ে সড়ক পার হতে দেখা যায়। শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক পারাপারের জন্য ২জন ট্রাফিক পুলিশ সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করার কথা থাকলেও তারা ব্যক্তিগত ধান্দায় থাকে বলে অভিভাবক ও সুশীল সমাজের পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠেছে।
উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সড়কে যানজট নিরসনকল্পে শিক্ষার্থীরা যানবাহনে লিপলেট লাগিয়ে চালকদের সর্তক করে দিলেও তাতেও কোন কাজ হচ্ছে না। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে দেখা যায় উখিয়া মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রায় হাজারেরও অধিক শিক্ষার্থী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যানবাহনের ফাঁকে ফাঁকে সড়ক পার হচ্ছে। এসময় অনেকেই উদ্যোগী হয়ে শিক্ষার্থীদের রাস্তা পর করিয়ে দিতে দেখা গেছে। প্রত্যেক্ষদর্শী সাবেক মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাষ্টার শামশুল আলম জানান, মিয়ানমার থেকে বল পূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা আসার পর থেকে যানজটের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি বলেন, এনজিও সংস্থার ব্যবহৃত গাড়ী ছাড়াও বাণিজ্যিক ভাবে যাত্রী পরিবহন খাতে টমটম গাড়ী ও ব্যাটারী চালিত রিক্সার সংখ্যা বেড়েছে আশংকা জনক ভাবে। যেসব গাড়ীর কোন বৈধতা নেই। সড়কে এসমস্ত অবৈধ যানবাহন নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব ট্রাফিক পুলিশের। কিন্তু তাদের কোন ভূমিকা এ পর্যন্তও পরিলক্ষিত হয়নি। যা পথচারীদের নিরাপদ নয় বলে তিনি দাবী করেন।
স্থানীয় প্রত্যেক্ষদর্শীদের অভিযোগ একই স্থানে দুটি শিক্ষা প্রতিষ্টান, স্টেশন মসজিদ পাশাপাশি থানা, ভূমি অফিস আড়াআড়ি ভাবে বিদ্যমান থাকার কারণে এখানে জনসমাগম নিত্যদিনের ব্যাপার। একই ভাবে স্টেশনের যেখানে সেখানে গাড়ী পার্কিং বিদ্যমান থাকার কারণে স্টেশনটি এখন মৃত্যু ফাঁদে পরিণত হয়েছে। উখিয়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাস্টার হারুন অর রশিদ জানান, শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক পারাপার নিশ্চিত করার জন্য দুটি স্পিট ব্রেকার নির্মাণের দাবী ছিল। কিন্তু উক্ত দাবীটি এপর্যন্তও বাস্তবায়ন হয়নি। প্রতিমধ্যে কৃষকলীগ নেতা মোসলেহ উদ্দিন ব্যক্তিগত ভাবে একটি স্পিড ব্রেকার নির্মাণ করলেও সড়ক জনপদ বিভাগ তা গুড়িয়ে দেয়। এব্যাপারে আলাপ করা হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নিকারুজ্জামান জানান, যানজট নিরসন করে পথচারী ও শিক্ষার্থী চলাচলের জন্য ভাসমান দোকান পাট উচ্ছেদ করা হয়েছে। মসজিদ গেইটে টমটম পার্কিংয়ের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, উখিয়া স্টেশনে কোন প্রকার অবৈধ কর্মকান্ড করতে দেয়া যাবে না। যা জনসাধারণের জন্য ক্ষতির কারণ হয়।

Share this post

scroll to top