উখিয়ার বালুখালী সীমান্তের ইয়াবা ব্যবসা জমির ও আলা উদ্দিনের দখলে

dd.jpg

কায়সার হামিদ মানিক উখিয়া::

উখিয়ার পালংখালী সীমান্তের ইয়াবা ব্যবসা পশ্চিম বালুখালী গ্রামের আলী আহম্মদের দুই ছেলে জমির উদ্দিন ও সম্প্রতি ইয়াবার বৃহত্তর চালান নিয়ে বাশঁখালী থানা পুলিশের তৎকালিন সহকারী উপ-পরিদর্শক আনোয়ারের হাতে পুলিশ কনষ্টেবল আলা উদ্দিন গ্রেপ্তার হয়ে দীর্ঘদিন চট্রগ্রাম জেল হাজত শেষে চাকুরীচ্যুত হয়ে নিজ গ্রাম বালুখালীতে ফিরে এসে ফের বালুখালী রোহিঙ্গা বস্তির শীর্ষ ইয়াবাকারবারীদের সাথে আতাঁত করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে হাড়িহাড়ি ইয়াবা পাচার করে যাচ্ছে বলে ব্যাপক অভিযোগ উঠেছে।
এলাকাবাসীরা জানান, সম্প্রতি জমির উদ্দিনের ইয়াবার চালান নিয়ে তার ভাই পুলিশ কনষ্টেবল আলা উদ্দিন পুলিশের জালে আটক হয়ে দীর্ঘ দিন কারাবুক করলেও ইয়াবার মজা এখনো ছাড়তে পারেনি। সে এলাকার উঠতি বয়সী ছাত্র ও বেকার যুবকদেরকে রাতারাতি কোটিপতি হওয়ার স্বপ্ন দেখিয়ে বৃহত্তর সিন্ডিকেট তৈরি করে বেপরোয়া ভাবে তাদের মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ইয়াবার চালান হাতবদল করে যাচ্ছে। এতে এলাকার উঠতি বয়সী ছাত্র ও যুবসমাজ ধ্বংসেরকূলে ঢলে পড়ছে। তাই অতি শিঘ্রই এলাকার চিহ্নিত দুই ভাইকে গ্রেপ্তার পূর্বক ক্রসফায়ারের আওতায় নিয়ে এসে দেশ ও সমাজকে কলংকমুক্ত করার জন্য র‌্যাব ৭ কক্সবাজারের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এ ব্যাপারে উখিয়া থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের তদন্তপূর্বক ইয়াবার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

Share this post

scroll to top