রোহিঙ্গাদের সহায়তার জন্য বাংলাদেশ একটি অনন্য রাষ্ট্র

Pic-1-04.11.2018.jpg

কায়সার হামিদ মানিক উখিয়া ::

সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণন বলেছেন, মানবিক বিবেচনায় দ্রুত সময়ের মধ্যে রোহিঙ্গাদের সহায়তার জন্য বাংলাদেশ একটি অনন্য রাষ্ট্র হিসাবে বিশে^র ইতিহাসে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। রোহিঙ্গা সমস্যাটি সমাধানের জন্য একটি দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা দরকার। কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণন এ কথা বলেন। তিনি বিমান যোগে রোববার দুপুরে কক্সবাজার বিমান বন্দরে পৌঁছেন। সেখানে তাকে স্বাগত জানান শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মো. আবুল কামাল, কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন। এরপর গাড়িযোগে তিনি পার্বত্য জেলা বান্দরবনের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের তুমব্রু কোনার পাড়া শূন্য রেখায় অবস্থিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে যান। শূণ্য রেখায় অবস্থিত রোহিঙ্গা নেতা দিল মোহাম্মদ ও আরিফ উল্লাহর সাথে সার্বিক পরিস্থিতির কথা জানতে চাইলে, রোহিঙ্গা নেতারা জানান, ১৫ নভেম্বর রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। কিন্তু আমাদের নিরাপত্তা, নাগরিকত্ব সহ মৌলিক অধিকার না দিলে আমরা কখনো মিয়ানমারে ফেরত যাবো না। এখানে আছি ভালই আছি কোন ভয় নেই। সেখান থেকে ফিরে ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণন উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের যান। ওখানে কথা বলেন রোহিঙ্গাদের সাথে। এরপর ভিভিয়ান বালাকৃষ্ণন কুতুপালং লম্বাশিয়া মধুরছড়া এক্সটেশন-৪ ক্যাম্প পরিদর্শনকালে রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেন। তার সঙ্গে রয়েছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী মাহমুদ আলী, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মোঃ আবুল কালাম এনডিসি, উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান, উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের। এছাড়া সরকারি বেসরকারি, এনজিও সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Share this post

scroll to top