উখিয়ায় জাতীয় নির্বাচন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে

pic-1-6.jpg

মাহমুদুল হক বাবুল উখিয়া ::

উখিয়ায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন হয়েছে। সেনা, বিজিবি, পুলিশ, আনসার ব্যাটালিয়নসহ অন্যান্য আইনশৃংখলা বাহিনীর দায়িত্বপালন ছিল দৃশ্যমান। উখিয়ার ৪৫ টি ভোট কেন্দ্রে ৪৫ জন প্রিজাইডিং অফিসার সমপরিমান সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার ও পোলিং অফিসার রোববার সকাল ৮ টা থেকে একটানা বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন করেছে। ভোট গ্রহনকালে ছিল সুশৃংখল ও উৎসবমুখর পরিবেশ। তবে ভোট গ্রহনকালে পুরুষের চাইতে নারী ও তরুন তরুনী ভোটারের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যনীয়।
সরজমিন ভালুকিয়া, ফলিয়াপাড়া, দরগাহবিল, ডেইলপাড়া, কুতুপালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ঘুরে দেখা যায়, সকাল ৮ টার আগেই ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেওয়ার জন্য লম্বা লাইন ধরে অপেক্ষা করছে। তবে সেখানে প্রার্থী বা প্রার্থীর সমর্থক নেতাকর্মীদের দেখা যায়নি। আইনশৃংলা রক্ষাবাহিনীর লোকজন ভোটারদের সুশৃংখল ভাবে লাইনে দাড়িয়ে ভোট প্রদানের জন্য অনুরুধ করতে দেখা গেছে। ভালুকিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে দায়িত্বরত প্রিজাইডিং অফিসার উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রায়হানুল ইসলাম মিয়া জানান, তার কেন্দ্রের সার্বিক পরিস্থিতি ভাল। এখানে কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটার কোন সম্ভাবনা নেই। ওই কেন্দ্রে দায়িত্বরত পুলিশের সহকারী উপ- পরিদর্শক মোঃ হান্নান জানান, ভোট কেন্দ্রে যাতে নারী পুরুষ ভিন্নভাবে লাইনে দাড়িয়ে ভোট দিতে পারে সে ব্যবস্থা আগে থেকেই নেওয়া হয়েছে। রাজাপালং ইউনিয়নের দরগাহবিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র ঘুরে প্রার্থীদের কাউকে দেখা যায়নি। তবে কিছু সংখ্যক কর্মী সমর্থক ভোটারদের ভোটদানে উৎসাহ সৃষ্টি করতে দেখা গেছে। ওই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার সোনার পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মিলন কুমার বড়–য়া জানান, তার কেন্দ্রে ৬ টি বুথ করা হয়েছে। যাতে ভোটারদের ভোট প্রদান করতে কোন প্রকার জামেলা পোহাতে না হয়। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানান, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মোঃ নিকারুজ্জামান চৌধুরী জানান, এ উপজেলার ৪৫ টি ভোট কেন্দ্রে ১লাখ ২০ হাজার ৩৩৮জন ভোটার রয়েছে। তৎমধ্যে পুরুষ ভোটার ৬১ হাজার ৩৪৪ ও মহিলা ভোটার ৫৮ হাজার ৯৫৮। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৬ টি কেন্দ্রের ফলাফল পাওয়া গেছে। তৎমধ্যে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শাহিন চৌধুরী কুতুপালং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীকে পেয়েছেন ২২৮০ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ১০৩ ভোট, পাতাবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীকে পেয়েছে ১৪৯৮ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ০৩ ভোট, দরগাহবিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ২৮২৮ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ২৮ ভোট, ডেইলপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ২০০৫ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ১৭৯ ভোট, উখিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ১৯৭৩ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ৪৩ ভোট, ফারিরবিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ১৮৪৪ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ১৩ ভোট, আঞ্জুমান পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ২৫৪৫ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ০৯ ভোট, ভালুকিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ২১৯০ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ২৭৩ ভোট, ভালুকিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ১৭৮৫ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ২৮৫ ভোট, আমতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ১৪৮৭ ভোট, ধানের শীষ ৫৩ ভোট, গয়ালমারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ১৫১৮ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ১২৪৬ ভোট, ফলিয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ৩৩১৪ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ৭৪ ভোট, উখিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ১৫৩৬ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ২২৯ ভোট, সিকদারবিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ২৩২৭ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ১৭৯ ভোট, থাইংখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ১৫৬২ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ১১৮৬ ভোট, ছেপটখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নৌকা প্রতীক পেয়েছে ৯৫৭ ভোট, ধানের শীষ পেয়েছে ১২৪৫ ভোট। প্রাপ্ত কেন্দ্রের নৌকা প্রতীক সর্বমোট ৩১ হাজার ৬৪৯ ভোট, ধানের শীষ প্রতীক শাহজাহান চৌধুরী সর্বমোট ৫ হাজার ১৪৮ ভোট পেয়েছে। উপজেলা রিটার্নিং অফিসারের কক্ষে বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে আসা ভোটের ফলাফল গ্রহন করা হচ্ছে বলে রিটার্নিং অফিসার জানিয়েছেন।

Share this post

scroll to top