উখিয়ায় পৃথক ঘটনায় খুন ২

download.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

উখিয়ায় পৃথক ঘটনায় রোহিঙ্গা যুবতীসহ দুইজন খুন হয়েছে। স্থানীয় সূত্র মতে , উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের হাঙ্গরঘোনা গ্রামের মকতুল হোসেন সাওদাগরের ছেলে ছৈয়দ আলম কুতুপালং লম্বাশিয়া ক্যাম্পের খাদিজা আকতার (১৮) নামের এক রোহিঙ্গা যুবতীকে দীর্ঘ ৩ মাস ধরে বাড়ীতে কাজের মেয়ে হিসাবে রাখে বলে জানা যায়। রোববার বিকাল ৫টার দিকে প্রত্যক্ষদর্শীরা হাঙ্গরঘোনা এলাকার গহীন অরণ্যে লাশ দেখতে পেয়ে উখিয়া থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে খদিজার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এলাকাবাসীরা জানান, রোহিঙ্গা নারী খদিজা ৩ দিন ধরে নিখোজ হওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লেও রহস্যজনক কারনে এলাকার কেউ মুখ খোলছেনা।
অপর দিকে, উপজেলার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের সাবেক রুমখা গ্রামের মোঃ আলীর ছেলে নাছির উদ্দিন (২১) কে ক্লাসে পাড়া গ্রামের জাফর আলমের ছেলে তারেকের নেতৃত্বে মৃত আব্দুস শুক্কুরের ছেলে নাজির হোসেন, মকতুল হোসনের ছেলে মোবারক, নুরুল ইসলামের ছেলে শাহজান, ফজল আহম্মদের ছেলে দুদু মিয়া, শুক্কুরের ছেলে ছিদ্দিকসহ শীর্ষরা পূর্বÑ পরিকল্পিত ভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে নিহতের পিতা মোঃ আলী দাবী করেছেন। রোববার সন্ধা ৬ টার দিকে রুমখা বড়বিল এলাকার রাস্তার মাঝে এ হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে উখিয়া থানার ওসি মোঃ আবুল খায়ের দুটি লাশ উদ্ধারের সত্যতা স্বীকার করেন এবং মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে বলে জানান তিনি।

Share this post

scroll to top