সংবাদ শিরোনাম
উখিয়ার জামতলী শফি উল্লাহ কাটা ক্যাম্প বাজারের খাস কালেকশনের নামে…থাইংখালীতে সরওয়ারের নেতৃত্বে সরকারি বনভুমিতে নির্মিত হচ্ছে স্থাপনামানবপাচারকারী জালাল জুতার মালা ও কোদাল দিয়ে মাথার চুল উপড়িয়ে…থাইংখালীতে সরওয়ারের নেতৃত্বে সরকারি বনভুমিতে নির্মিত হচ্ছে স্থাপনাকক্সবাজারে গণবদলির পর নতুন ওসি-এসআইসহ ৩৭ জনকে পোস্টিংকক্সবাজার থেকে শীর্ষ কর্মকর্তাসহ পুলিশের ১৩৪৭ সদস্য বদলিরোহিঙ্গাদের বাংলাদেশী জাতীয় পত্র বানিয়ে দিচ্ছে একটি সিন্ডিকেট, জড়িত শিক্ষক…নাফ নদীতে গোলাগুলি করে ৫০ হাজার ইয়াবা উদ্ধারউখিয়ায় ইয়াবাসহ দুই রোহিঙ্গা আটকউখিয়ার চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার ঘটনার এক বছর

লম্বাশিয়া ক্যাম্পে সাংবাদিক হামলার ঘটনায় ১১ রোহিঙ্গা আটক- মালামাল উদ্ধার

7.jpg

মাহমুদুল হক বাবুল উখিয়া ::

মাতা ও দুই শিশু কন্যাকে অপহরন গুজবে শতশত রোহিঙ্গা জার্মানি সাংবাদিকদের উপর হামলা চালিয়ে পৈচাসিক নির্যাতন করে ৩ জার্মানি সাংবাদিকসহ ৪ জনকে গুরুতর আহত করেছে। তাদের ব্যবহ্নত গাড়ী ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়ে সাংবাদিকদের প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র ও মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। এসময় সেনা ও পুলিশ সদস্যরা তাদের উদ্ধার করে ক্যাম্প হাসপাতালে ভর্তি করেন। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে লম্বাশিয়া বাজারে এ ঘটনাটি ঘটেছে।
জার্মানি সাংবাদিকদের বহনকারী গাড়ীর চালক কক্সবাজার টেকপাড়া গ্রামের নবী আলম (৩০) জানান, তারা বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টার দিকে কুতুপালং ৪ এক্সটেনশন ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের নিকট থেকে বিভিন্ন সাক্ষাৎকার ও ফটো সেশনসহ বেশ কয়েকজন নির্যাতিত রোহিঙ্গা নারী পুরুষের সাথে কথা বলে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটের সময় লম্বাশিয়া ১ নং ক্যাম্পে মাসহ দুটি শিশু কন্যার সাক্ষাৎকার গ্রহন করে জার্মানি সাংবাদিকরা আবেগ প্রবন হয়ে পড়ে। এসময় জার্মানি সাংবাদিকরা ওই ৩জন মা ও শিশু যথাক্রমে বুশেরা বেগম (৯), কাচুনামা আকতার (৮) ও তাদের মাতা হাসিনা আকতার (৩৫) কে একটি টমটমে গাড়ীতে করে লম্বাশিয়া বাজারে যেতে বলেন। জার্মানি সাংবাদিকরা তাদেরকে চাহিদামত ভাল কাপড় চোপড় ও কিছু এমিটেশনের অলংকার কিনে দিয়ে তাদের একটি ভিডিও চিত্র ধারন করার জন্য গাড়ীতে তোলে একটি পরিবেশ সম্মত জায়গায় নিয়ে যাওয়ারকালে অপহরণ আতংকে শিশুরা চিৎকার দিয়ে উঠলে উত্তেজিত শতশত রোহিঙ্গা দা, কিরিচ, লাঠিসোটা নিয়ে জার্মান সাংবাদিকদের গাড়ী গতিরোধ করে ব্যপক ভাংচুর চালায়। এসময় রোহিঙ্গাদের এলোপাতাড়ি মারধরে জার্মানি সাংবাদিক ইউচো লিওলি, গ্রান্ডস ষ্টাফ, ষ্ট্যাটিউ এপল গুরুতর আহত হয়। তাদের উদ্ধার করতে এসে ডিএসবি সদস্য জাকির হোসাইন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এসময় রোহিঙ্গারা জার্মানি সাংবাদিকদের ক্যামরা, সাউন রেকড়ার, লাইসেন্স, মানিব্যাগ, ৩টি লাগেজ, পাসপোর্টসহ গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্রাদি লুটপাট করে জার্মানি সাংবাদিকদের জিম্মি করে রাখে। খবর পেয়ে সেনা ও পুলিশ সদস্যরা লম্বাশিয়া বাজারে রোহিঙ্গাদের ধাওয়া করে জার্মানি সাংবাদিকদের উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জার্মানি সাংবাদিকদের বাংলাদেশী দোভাসী মোঃ সিহাব উদ্দিন (৩৫) বাদী হয়ে উখিয়া থানায় ৩/৪শ জন অজ্ঞাতনামা রোহিঙ্গাকে আসামী করে একটি এজাহার দায়ের করেছে। এদিকে দুই রোহিঙ্গা শিশু কন্যার মা হাসিনা আকতার (৩৫) এর সাথে উখিয়া থানায় দেখা হয়। ঘটনার বিবরন জানতে চাইলে ওই রোহিঙ্গা নারী বলেন, তাদেরকে বাড়ী পৌছে দেওয়ার কথা বলে জার্মানি সাংবাদিকরা অন্য দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল। এসময় অপহরণ আতংকে শিশু কন্যারা চিৎকার দিলে রোহিঙ্গারা তাদের উদ্ধার করে। বাংলাদেশী দোভাসী মোঃ সিহাব উদ্দিন এ অভিযোগ অস্বীকার করেন। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল খায়ের জানান, জার্মানি সাংবাদিকদেও হামলা ও মালামাল লুটপাটের ঘটনায় পুলিশ বৃহস্পতিবার রাতে লম্বাশিয়া ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে রোহিঙ্গা নাগরিক জিয়াবুল হক, জামাল হোসেন, নুরুল হাকিম, সিরাজ মিয়া, খায়রুল আমিন, মোঃ ইদ্রিস, ছৈয়দ আলম, রফিক, শাহজান ও ফরিদ আলমকে গ্রেপ্তার করেছে। উদ্ধার করা হয়েছে, আইফোন, পাসপোর্ট, ক্যামরাষ্টেন্ট, এ্যালমুনিয়াম ইকোবমেন্ট।

Share this post

scroll to top