টেকনাফে শুরু হয়েছে ইয়াবাকারবারীদের সারেন্ডার অনুষ্ঠান

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

কক্সবাজার জেলা পুলিশের ব্যবস্থাপনায় আজ সোমবার ৩ ফেব্রুয়ারী বিকেল সাড়ে ৩ টা দিকে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে টেকনাফ সরকারি কলেজ মাঠে ২১ জন ইয়াবাকারবারীর আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে। ইয়াবাকারবারীর সাথে মাস্টার হুন্ডি-বিকাশ কারবারিও প্রচুর অস্ত্র ও ইয়াবা নিয়ে আত্মসমর্পণ করবে এ অনুষ্ঠানে। অনুষ্ঠানে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ বক্তৃতা দেওয়া শুরু করেছেন। আত্মসমর্পণের জন্য মধ্যস্থতাকারী ইতিমধ্যে টেকনাফ কলেজ মাঠে নিয়ে এসে কক্সবাজার জেলা পুলিশের কাছে ২১ জন ইয়াবাকারবারীকে সোপর্দ করেছে।

২১ জন আত্মসমর্পণকারীর প্রোফাইল ইতিমধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পুলিশ শাখায়, পুলিশ সদর দপ্তর, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি’র দপ্তর সহ সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ক্লিয়ারেন্স দেওয়ার পর আজ আত্মসমর্পন অনুষ্ঠান হচ্ছে।

আজকের সারেন্ডার অনুষ্ঠানে একইসাথে টেকনাফ উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের এর উদ্যোগে ২০২০ সালের জাতীয় পুলিশ সপ্তাহে আইজিপি ব্যাজ প্রাপ্ত পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বিপিএম (বার) পিপিএম, সারাদেশে একমাত্র এসপি হিসাবে বাংলাদেশ পুলিশ মেডেল (সেবা) পদক প্রাপ্ত কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার), আইজিপি ব্যাজ প্রাপ্ত কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোঃ ইকবাল হোসাইন, মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর ও টেকনাফ মডেল থানার এএসআই সনজিব দত্ত এবং কক্সবাজার জেলা পুলিশের উদ্যোগে পরপর ৪ টি আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানের সফল মধ্যস্থতাকারী সাংবাদিক এম.এম আকরাম হোসাইনকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হচ্ছে।

কক্সবাজার জেলা পুলিশ আয়োজিত এই আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানের শিরোনাম দেওয়া হয়েছে “কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ ও মাদক ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠান”। কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এ.বি.এম মাসুদ হোসেন বিপিএম (বার) অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করছেন। পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক বিপিএম (বার) পিপিএম আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকছেন। তিনি অনুষ্ঠানস্থলে বিকেল ৩’৪০ মিনিট পর্যন্ত আসেননি। কক্সবাজার জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, কমিউনিটি পুলিশিং এর কক্সবাজার জেলা সভাপতি, সিনিয়র সাংবাদিক এডভোকেট তোফায়েল আহমদ মঞ্চে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত রয়েছেন।ইয়াবাকারবারীদের আত্মসমর্পণের পর তাদের বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র আইনে টেকনাফ মডেল থানায় পৃথক ২ টি জিআর মামলা দায়ের করে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে একইদিন সন্ধ্যায় কারাগারে পাঠানো হবে। তবে এ মামলা থেকে আত্মসমর্পণকারীরা সহজে মুক্তি পেতে মামলা পরিচালনায় রাষ্ট্রপক্ষ আত্মসমর্পণকারীদের সহযোগিতা করবে।

Share this post

scroll to top