বালুখালী সীমান্তের শীর্ষ ইয়াবাডন মাছন আতংকে

04.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

উখিয়ার বালুখালী সীমান্ত ও ক্যাম্প ভিত্তিক মাদক ব্যবসায়ীদের জনক বালুখালী বানুর বাপের খিল নামক গ্রামের লেবার নুর আহম্মদের ছেলে সীমান্ত, ক্যাম্প ভিত্তিক অপরাধজনক কর্মকান্ড, শত অপকর্মের অন্যতম হোতা ও আন্ডার গ্রাউন্ডে থাকা শীর্ষ ইয়াবা কারবারী মোঃ হোছন ড্রাইভার প্রকাশ ইয়াবা মাছন পুলিশি গ্রেপ্তার এড়াতে চরম আতংকে রাত কাটাচ্ছে বনে জঙ্গলে বলে অভিযোগ উঠেছে।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সীমান্তের শীর্ষ ইয়াবা কারবারী মাছন দীর্ঘ দিন ধরে ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িয়ে পড়ার পাশাপাশি একটি বৃহত্তর সিন্ডিকেট তৈরি করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে লাখ লাখ পিস ইয়াবা পাচার করে , হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা। উক্ত ইয়াবার কালো টাকার পাহাড়ের গরমে এলাকার সাধারন নীরহ লোকজনের উপর চালিয়ে যাচ্ছে চরম অত্যাচার ও নির্যাতন। তার অত্যাচার ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করিলে তার উপর নেমে আসে চরম অত্যাচার ও নির্যঅতন। শুধু তাই নয়, বিভিন্ন স্থানে শতাধিক গডফাদারের নেতৃত্বে পুরো উখিয়া সীমান্তের অন্তত ২০টি সিন্ডিকেট মোটা দাগের ইয়াবা লেনদেন ও পাচার কাজে লিপ্ত রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি অর্থাৎ গত ২১/১০/২০১৮ইং বিকালে ঢাকা ডিএমপি পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা কমলাপুর ষ্টেশন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ও হিরোইনসহ নাইংক্ষ্যংছড়ি এলাকার মৃত কাজ অং মার্মার ছেলে মং চিংলই মার্মাকে আটক করলেও পুলিশি উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গিয়ে গ্রেপ্তারের কবল থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে বলে সূত্রে জানা গেছে। উক্ত ঘটনায় ইয়াবা মাছনসহ দুই জনকে আসামী করে মতিঝিল থানা পুলিশ বাদী হয়ে মাদক দ্রব্য আইনের সংশ্লিষ্ট ধারায় একটি মামলা রুজু করেন। যার মামলা নং (৫০)। সচেতন অভিভাবকদের অভিমত, বর্তমান ভয়াবহ জঙ্গী ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে যেসব কিশোর, যুবক জড়িয়ে পড়েছে, তাদের একটি অংশ মাদকাসক্ত ও মাদক পাচারের সাথে কোন না কোনভাবে সম্পৃক্ত রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাদের মতে, কারা ইয়াবা পাচার করে বিপুল বিত্ত বৈভবের মালিক হয়েছে, তাদের সম্পর্কে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী, বিশেষ করে র‌্যাব, গোয়েন্দা সংস্থা, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, দুর্নীতি দমন কমিশন সহ সমাজের স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সমন্বিত প্রচেষ্টায় বা নজরদারির দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে, আগামী প্রজন্ম খুবই অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে পড়বে।
উখিয়া থানার ওসি তদন্ত মোঃ নুরুল ইসলাম, ইয়াবা ব্যবসায়ীদের চিহ্নিত করে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারের আওতায় নিয়া আসা হবে বলে তিনি জানান

Share this post

scroll to top