উখিয়ার ছোয়াংখালীতে ফ্লীম ষ্টাইলে জমি দখলের চেষ্টা – লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

5.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

উখিয়ার জালিয়াপালং ইউনিয়নের ছোয়াংখালী এলাকায় ফ্লীম ষ্টাইলে জমি দখলে ব্যর্থ হয়ে দুই শতাধিক সুপারি ও কলা গাছ কর্তন করে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনাটি ঘটেছে।
সরজমিন ঘটনাস্থল ঘুরে ও এলাকার বেশ কয়েকজন লোকের সাথে কথা বলে জানা গেছে। ইউনিয়নের মৃত ফকির মোহাম্মদের ছেলে নাজির হোসেন ও কাউছার মোহাম্মদ শামীম গং এর ক্রয়কৃত ও দীর্ঘ দিনের ভোগদখলীয় জমিতে বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক ও অতিরিক্ত রাজস্ব দায়িত্ব) আদালত, কক্সবাজারের বি,এস ৭৯৯৭ নং দাগের স্থগিত আদেশ অমান্য করে একই এলাকার মোস্তফার ছেলে এলাকার চিহ্নিত ভুমিদস্যু নাছির উদ্দিনের নেতৃত্বে মামুন, জুলফিকার আলী ভুট্রো, মোঃ আলী, লিয়াকত আলী প্রকাশ বাবুল, ইউছুপ, মোবারক মিয়া, আকতার মিয়া ও আবুল কালামসহ শীর্ষরা পূর্ব শক্রুতার জের , কালো টাকার প্রভাব বিস্তার ও সন্ত্রাসী কায়দায় ধারালো অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে ফ্লীম ষ্টাইলে শামীম ও নাজির হোসেন গং এর ৩৫ শতক জমি জোর পূর্বক দখল করতে গিয়ে ক্ষুব্দ হয়ে দুইশতাধিক সুপারি ও কলাগাছ কর্তন করে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন করেছে বলে ভোক্তভোগী নাজির হোসেন ও শামীম গং প্রতিবেদককে জানিয়েছেন। উক্ত ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে বলেও জানা গেছে।
স্থানীয় আবুল হোসেন জানান, শামীম গং ও নাছির উদ্দিন গং দুই গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। উক্ত বিরোধের জের ধরে নাছির উদ্দিনের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসীরা যে ভাবে তান্ড চালিয়েছে এটা খুব দুঃখ জনক। বিরোধ চলছে জমির সাথে এখানে গাছের কি অপরাধ ছিল। এভাবে গাছপালা কর্তন করতে হল। স্থানীয় ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হক গাছ কাটার কথা স্বীকার করেন। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

Share this post

scroll to top