মালেশিয়াগামী ১২ জন রোহিঙ্গা যুবতীকে উখিয়ার উপকূল থেকে উদ্ধার

download-1.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

সাম্প্রতিক সময়ে উখিয়ার টেকনাফ, কক্সবাজার, মহেশখালী উপকূলীয় এলাকা দিয়ে সাগর পথে মানব পাচারের ধারাবাহিকতায় আশংকাজনকভাবে বেড়ে গেছে। প্রতিনিয়ত সাগর উপকূল থেকে উদ্ধার হচ্ছে রোহিঙ্গা যুবতী নারী। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে উখিয়ার উপকূলীয় এলাকায় পাইন্যাশিয়া গ্রামবাসী ৪জন রোহিঙ্গা যুবতীকে উদ্ধার করে উখিয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। উদ্ধারকৃত যুবতীরা হচ্ছে থাইংখালী ক্যাম্পের মো: কাশেমের মেয়ে সাহানা আক্তার (১৮) কুতুপালং ক্যাম্পের মো: রফিকের মেয়ে নুর ছেহের (১৮)। একই ক্যাম্পে আব্দুল হাফিজের মেয়ে হামিদা বেগম (১৭), কুতুপালং ক্যাম্পের আব্দুল হাফিজের মেয়ে নুর ছেহেরা (১৬) তাদের কাছ থেকে জানতে চাওয়া হলে তারা কোথায় যাচ্ছিল ? এবং নিয়ে যাচ্ছিল কে ? এমন প্রশ্নের জবাবে ঐ রোহিঙ্গা যুবতীরা কিছু জানাতে পারেনি। শুধু বলছে মালেশিয়া তাদের স্বজন আছে। তারা সেখানে চলে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এর আগে বৃহস্পতিবার রাত সারে ১০টার দিকে ইনানী পুলিশ উপকূলীয় মেরিন ড্রাইভ সংলগ্ন ঘাটঘর এলাকায় নৌকার জন্য অপেক্ষমান ৮জন রোহিঙ্গা যুবতীতে উদ্ধার করে উখিয়া থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করে। ইনানী পুলিশ ফাড়িঁর ইনচার্জ সিদ্ধার্থ সাহা বলেন, রোহিঙ্গা নারীরা স্থাণীয় দালালের মাধ্যমে প্রতিনিয়ত সাগর পথে মালেশিয়া যাওয়ার জন্য জালিয়া পালং ইউনিয়নের বিভিন্ন স্পটে একত্রিত হচ্ছে। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মর্জিয়া আক্তার মর্জি জানান, তাদেকে স্ব-স্ব ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হয়েছে।

Share this post

scroll to top