উখিয়ার পাতাবাড়ীতে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত ১

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

চাঁদার টাকা না দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে উখিয়ার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের মধ্যম হলদিয়া এলাকার এম কে কে ইট ভাটার পরিচালককে হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করেছে। বৃহস্পতিবার সন্ধায় এ হামলার ঘটনাটি ঘটেছে।
সরজমিন ও ঘটনাস্থল ও এলাকার বেশ কয়েকজন লোকের সাথে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার হলদিয়াপালং ইউনিয়নের মধ্যম হলদিয়া গ্রামের মৃত মোঃ কালুর ছেলে এম কে কে ইট ভাটার পরিচালক মোঃ আব্দুস ছবুর (৪০) দীর্ঘ দিন ধরে সুনাম ও দক্ষতার সহিত ইট ভাটা পরিচালনা করে আসছে। এমতাবস্থায় এলাকার একটি মহল তার উন্নতি সহ্য করতে না পেরে প্রতিনিয়ত মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে তাকে উত্তাপ্ত করে থাকে বলে প্রত্যদর্শীরা জানিয়েছেন।
ভুক্তভোগী আব্দুস ছবুর জানান, পূর্বের ন্যায় একই ইউনিয়নের পশ্চিম পাতাবাড়ী গ্রামের গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীর ছেলে মোঃ সোহাগ উদ্দিন ও পাতাবাড়ী আদর্শ গ্রামের সরওয়ার কামালের ছেলে সৌরভ বৃহস্পতিবার সন্ধায় মোটর সাইকেল যোগে আমার ইট ভাটার সামনে এসে আড়াই লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। এসময় আমি তাদের দাবীকৃত চাঁদার টাকা দিতে অনিহা প্রকাশ করিলে তারা ক্ষুব্দ হয়ে ঘটনাস্থ থেকে চলে যায়। ঘন্টাখানিক পর গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীসহ ধারালো অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে আরো ৫/৬ অস্ত্রধারীরা ফের আমার ইট ভাটার সামনে এসে ধারালো দা, কিরিচ ও লাঠিসোটা দিয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়ে গুরুতর জখম করে ক্ষান্ত না হয়ে আমার পকেটে থাকা ইট বিক্রির ৫০ হাজার টাকা লুটপাট করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। এসময় এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে অস্ত্রধারীদের কবল থেকে আহতকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক আহত শংকামুক্ত নয় বলে তিনি জানিয়েছেন।
স্থানীয় ইউপি সদস্য সরওয়ার বাদশাহ মেম্বার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন এবং এধরনের নেক্কারজনক ঘটনা সে আর কখনো দেখেনি বলে জানান। তিনি আরো বলেন, আব্দুস ছবুর কোম্পানির হামলার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার পূর্বক কঠিন শাস্তির আওতায় নিয়ে আসার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Share this post

scroll to top