সংবাদ শিরোনাম

খালের ভাঙ্গনাতংকে ঘিলাতলীর শতাধিক বসতবাড়ি

Ukhiya-Pic-10.10.2020.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

এক কালের তুঘুড় রাজনীতিবিদ একাধিক বার নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা চেয়ারম্যান মরহুম নুুরুল ইসলাম চৌধুরী স্মরণে নামাঙ্খিত উখিয়ার জনগুরুত্বপূর্ণ নুরুল ইসলাম চৌধুরী সড়কটি খালের অব্যাহত ভাঙ্গনে অস্থিত্ব সংকটে পড়েছে। আতংকে রয়েছে খালের পাড়ে বসবাসরত ঘিলাতলী পাড়ার প্রায় শতাধিক বসতবাড়ি। স্থানীয়দের দাবী এ সড়ক রক্ষায় গাইড ওয়াল নির্মাণ করা না হলে বিলীন হয়ে যেতে পারে ফসলী জমি জমা, ক্ষেত খামার ও জনবসতি।
সরেজমিন ঘটনাস্থল ঘিলাতলী পাড়া খালের একাংশ ঘুরে দেখা যায় খাল ভরাট করে নির্মাণ করা হয়েছে বহুতল ভবন, দোকানপাট ও বিভিন্ন প্রকার স্থাপনা। খালের রক্ষিত অংশে বসবাসরত পরিবারগুলোর ময়লা আর্বজনা, বাঁশঝাড় ও গণশৌচাগার নির্মাণ করা হয়েছে। ফলে খালটি অত্যস্ত সংকুচিত হয়ে পড়েছে।
খালের পাড়ে বসবাসরত নুর মোহাম্মদ সিকদার জানালেন, খালের উভয় পাশের্^ এক শ্রেণির প্রভাবশালী ব্যক্তি বিভিন্ন প্রকার স্থাপনা নির্মাণ করে দখলে নিয়েছে। তাছাড়া এ খালটি সৃষ্টি লগ্ন থেকে এ পর্যন্ত খনন করা হয়নি। উপরোন্তু খালের দু’পাশের্^ বসবাসরত লোকজনের অপব্যবহারের কারণে খালটি এখন অস্থিত্ব সংকটে পড়েছে। প্রতি বর্ষা মৌসুমে পাহাড়ী ঢলের পানিতে খালে পানির ধারণ ক্ষমতা লোপ পেয়ে দু”কুলে উপচে পড়া পানিতে শত শত বাড়িঘর, জমিজমা প্লাবিত হয়ে পড়ে।
তিনি বলেন, তৎকালীন সময়ে মরহুম নুরুল ইসলাম চৌধুরী বদন্যতায় খালের ভাঙ্গন রোধে একটি গাইড ওয়াল নির্মাণ করা হলে তা এখন কোন কাজে আসছে না। স্থানীয় প্রবাসী ও সমাজ সর্দার ফিরোজ আহমদ বাদল জানান, খালের ভাঙ্গনে তাদের বাড়িঘর রক্ষা করা কঠিন হয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, তার মতো অসংখ্য বাড়ীঘর, ক্ষেত খামার, অদূর ভবিষ্যতে খালের গর্ভে বিলীন হয়ে যেতে পারে।
অধ্যাপক নুরুল আমিন সিকদার ভুট্টো জানান, তার বাড়ীও খালের পাশের্^। তবুও তার ঐকান্তিক দাবী নুরুল ইসলাম চৌধুরী সড়ক দিয়ে কুতুপালং, মধুরছড়া, লম্বাশিয়া, মাছকারিয়া, উপকূলের মাদারবনিয়াসহ বেশ কিছু গ্রামের মানুষ আসা যাওয়া করে থাকে। সড়কটি খালের গর্ভে বিলীন হয়ে গেলে অসংখ্য মানুষ বিপদগামী হওয়ার আশংকা করা হচ্ছে। তিনি অবিলম্বে এ সড়কটি একটি পূর্ণাঙ্গ সড়কে নির্মাণ করতে সড়কের পাশে গাইড ওয়াল নির্মাণ করার দাবী জানান।
রাজাপালং ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বলেন, জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি সংস্কার, সম্প্রসারণ ও টেকসই উন্নয়নের জন্য উপজেলা প্রশাসনের মাসিক সমন্বয় সভায় প্রস্তাব করা হয়েছে। তিনি বলেন, পরিপূর্ণ বরাদ্ধ না পাওয়ার কারণে কাজ শুরু সম্ভব হচ্ছে না।

Share this post

scroll to top