উখিয়ায় সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনায় আহত ১ আটক – ২

o0.jpg

উখিয়া ক্রাইম নিউজ ডেস্ক::

উখিয়ার ক্রাইম জোন নামে খ্যাত পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালীতে সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলায় একজন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বলে জানা গেছে।
উক্ত হামলার ঘটনায় বৃহস্পতিবার উখিয়া থানা পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে ২জনকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে অভিযানে নেতৃত্বধানকারী পুলিশ কর্মকর্তা এসআই আরিফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ১২ জানুয়ারী বিকাল ৪ টার দিকে এ হামলার ঘটনাটি ঘটেছে।
ভুক্তভোগীদের পারিবারিক সূত্রমতে জানা গেছে, থাইংখালী ঘোনার পাড়া গ্রামের হিমাংসু শর্মার ছেলে এলাকার চিহ্নিত অস্ত্রধারী ও শীর্ষ সন্ত্রাসী সজল কান্তি শর্মার নেতৃত্বে সুমন শর্মা, পলাশ শর্মাসহ শীর্ষরা পূর্ব -শক্রুতা ও জায়গা জমির বিরোধের জের ধরে একই এলাকার মৃত জদু নাথ কান্দি দাশের ছেলে হতদরিদ্র আরাধন কান্তি দাশকে ধারালো দা, কিরিচ ইত্যাদি দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে এলোপাতাড়ি ক’পিয়ে গুরুতর জখম করে মাটিতে ফেলেদে। এসময় আহতের শোর চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে আহতকে দ্রুত উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করান। কর্তব্যরত চিকিৎসক আহত ব্যক্তি এখনো সংখ্যামুক্ত নয় বলে প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।
ভুক্তভোগী আরাধন কান্তি দাশ বলেন, হামলার সাথে জড়িত ৩ ভাইকে আসামী করে উখিয়া থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করেছি। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ বিষয়টি আমলে নিয়ে এজাহারটি মামলা হিসাবে নথিভুক্ত করেন। যার মামলা নং- ৪৭ তারিখঃ- ১৬/১/২০২১ইং। তিনি আরো বলেন, পলাতক আসামী সুমন শর্মা মুঠফোনে হুংকার দিয়ে বলেন, আগামী এক সাপ্তাহের মধ্যে থানা থেকে মামলা তুলে না নিলে স্ব-পরিবারে তাদেরকে হত্যা করে লাশ ঘুম করা হবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারন করেন। তাই আমি ও আমার পরিবারের নিরাপত্তার জন্য জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আহম্মদ সন্জুর মোরশেদ আসামী আটকের সত্যতা স্বীকার করেন এবং আটককৃতদের জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

Share this post

scroll to top